গণিত বিভাগ

দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের অন্যতম বিদ্যাপীঠ সরকারি এম এম কলেজ ১৯৪১ সালের জুলাই মাসে উচ্চ মাধ্যমিক  শ্রেণীর শিক্ষা কার্যক্রম দিয়ে ‘যশোর কলেজ’ নামে যাত্রা শুরু করে। ১৯৪৫ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শেষে কলেজটির নাম পরিবর্তন করে যশোরের কৃতি সন্তান মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের নামানুসারে ‘মাইকেল মধুসূদন কলেজ’ সংক্ষেপে এম এম কলেজ নামে নামকরণ করা হয়। কলেজটির সূচনালগ্নেই অনুমোদিত বিষয় সমুহের অন্যতম বিষয় ছিল ‘অংক’ তথা গণিত। ১৯৫০-এর দশকে কলেজটিতে বিএসসি (পাস) কোর্স প্রবর্তন করা হয়। ১৯৬৮ সালের ১ মে কলেজটিকে সরকারিকরণ করা হয়। ১৯৭১ সালের রক্তক্ষয়ী স্বাধীনতা যুদ্ধে এ কলেজের অনেক ছাত্র ও শিক্ষক শহীদ হন। জাতির সেই সূর্যসন্তানদের একজন হলেন গণিত বিভাগের তৎকালীন প্রভাষক শহীদ নবীন চন্দ্র ঘোষ।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার শুরুতেই ১৯৯১-৯২ শিক্ষাবর্ষে এ বিভাগ গণিত -এ অনার্স কোর্স শুরু করে। অতঃপর ১৯৯২-৯৩ শিক্ষাবর্ষে এই বিভাগ মাস্টার্স (প্রথম পর্ব) এবং ১৯৯৪-৯৫ শিক্ষাবর্ষে মাস্টার্স (শেষ পর্ব) কোর্স চালু হয়। বর্তমানে এই বিভাগের সকল কার্যক্রম পুরনো বিজ্ঞান ভবন, ভবন-২ এর তৃতীয় তলার সবগুলো কক্ষকে ঘিরে চলমান; যেখানে ৩টি শ্রেণি কক্ষ, ২টি কম্পিউটার ল্যাব, একটি সেমিনার লাইব্রেরি ও একটি বিভাগীয় শিক্ষক মিলনায়তন রয়েছে। এ বিভাগের সেমিনার লাইব্রেরীতে বইয়ের সংখ্যা প্রায় ৪০০০। প্রতি সেশনে প্রথম বর্ষ সম্মান শ্রেণীতে ১৮০ জন এবং মাস্টার্স (প্রথম পর্ব)-এ ১৫০ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়। বর্তমানে প্রায় ১২০০ ছাত্র/ছাত্রী এ বিভাগে অধ্যয়নরত। এছাড়াও একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদান করা হয়।

অনার্স ও মাস্টার্স কোর্স সম্পন্নকারী গণিতের ছাত্র/ছাত্রীদের বিভিন্ন ক্ষেত্রে চাকরির যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। তারা সরকারী ও বেসরকারী উভয় প্রতিষ্ঠানে সুনামের সাথে চাকরি করছে। এছাড়াও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী BCS ক্যাডার, আইটি সেক্টর, ব্যাংক ও বহুজাতিক কোম্পানিতে প্রতিযোগীতামূলক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে দক্ষতার সাথে চাকরি করছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কারিকুলাম অনুযায়ী গুরুত্বপূর্ণ ব্যবহারিক বিষয়ে এই বিভাগে শিক্ষা দান করা হয়। ছাত্র-ছাত্রীরা প্রোগ্রামিং ভাষা Mathematica এবং Fortran এর উপর তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক শিক্ষা গ্রহণ করে, যা আইটি সেক্টরে চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে সুবিধা হয়। এছাড়াও তারা Lattic Theory, Discrete Mathematics, Astronomy, Differential Geometry, Theory of Numbers, Fluid Dynamics, Differential and Integral Equations, Numarical Analysis এবং Theory of Relativity বিষয়েও জ্ঞান অর্জন করে।

এ বিভাগের শিক্ষকগণ নির্ধারিত কোর্স-কারিকুলামের পাশাপাশি মানবিক মুল্যবোধ উন্নয়নের জন্য সহশিক্ষা কার্জক্রমের উপর অত্যধিক জোর দিয়ে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় প্রত্যেক বছর শিক্ষার্থীরা বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও বিভিন্ন টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করে। এছাড়াও তারা শিক্ষাসফরে গিয়ে ঐতিহাসিক ও দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে ধারণা লাভ করে। এই বিভাগের ১২ জন নিবেদিতপ্রাণ মেধাবী, দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষক সর্বদা ছাত্র-ছাত্রীদের দেশ প্রেমিক, সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে বদ্ধপরিকর।

বিভাগীয় প্রধান

গণিত বিভাগে আপনাকে স্বাগতম  Roger Bacon -এর মতে “Mathematics is the gate and key of all sciences”  গণিত হল সকল বিজ্ঞানের প্রবেশদ্বার ও চাবিকাঠি। যদিও প্রত্যেকেরই গণিত বোঝার এবং ব্যবহারের সক্ষমতা রয়েছে, তথাপি কিছু লোকের মধ্যে প্রকৃতি প্রদত্ত গাণিতিক দক্ষতা দেখা যায়। আবার কিছু লোক, অন্যদেরকে বিস্মিত করার জন্য গণিত নিয়ে খেলা করে, তারা সংখ্যাগুলিকে […]